মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

গ্রাম আদালত

গ্রাম আদালতঃ  

                  গ্রামাঞ্চলের কতিপয় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দেওয়ানী ও ফৌজদারী বিরোধ স্থানীয়ভাবে নিস্পত্তি করার জন্য

                             ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় যে আদালত গঠিত হয় সে আদালতই “গ্রাম আদালত”।   

 

গ্রাম আদালত আইনঃ

                        গ্রাম আদালত আইন ২০০৬ এর আওতায় গ্রাম আদালত গঠিত হয়। ৯মে ২০০৬ইং

     তারিখ হতে গ্রাম আদালত আইন কার্যকর হয়েছে।  

 

 

গ্রাম আদালতের কাঠামোঃ-

                                                     ৫ (পাচ) জন প্রতিনিধির সমন্বয়ে গ্রাম আদালত গঠিত হয়।

                                                এঁরা হলেনঃ

                                                    ১। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান

                                                   ২। আবেদনকারীর পক্ষের ২ জন প্রতিনিধি (১জন ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার

       এবং ১জন গন্যমান্য ব্যাক্তি)।

                                                  ৩। প্রতিবাদীর পক্ষের ২ জন প্রতিনিধি (১জন ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার

       এবং ১জন গন্যমান্য ব্যাক্তি)। ধারা-৫।

 

গ্রাম আদালতের চেয়ারম্যানঃ

                                    যে ইউনিয়নে গ্রাম আদালত গঠনের আবেদন দাখিল করা হবে সাধারনতঃ সে

                                    ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রাম আদালত চেয়ারম্যান হবেন। ধারা-৬।

 

 

অত্র খানপুর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম শালিশি আদালত একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠানের ন্যয় কাজ করে আসছে। অনেক মামলার শান্তিপূর্ন ভাবে নিষ্পত্তি হয়ে থাকে। অত্র ইউনিয়নের গ্রাম শালিশি আদালত করছে। তাছাড়া জনগনকে আইন সচেতন করার এই গুরুত্বপূর্ন কাজটি এই আদালতের মাধ্যমে জনগণের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছে। এতে করে সমাজে অপরাধ প্রবনতা অনেক আংশে হ্রাস পেয়েছে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter